RESIST FASCIST TERROR IN WB BY TMC-MAOIST-POLICE-MEDIA NEXUS

(CLICK ON CAPTION/LINK/POSTING BELOW TO ENLARGE & READ)

Thursday, June 18, 2015

RAPE AT HARIPUR, BAGDA, NORTH 24 PARGANAS - অপরাধীকে শাস্তি দেওয়া এখন এরাজ্যের পুলিশের কাজ নয়। বরং অপরাধের সাফাই গাওয়াই রাজ্যের পুলিশ কর্তাদের প্রধান কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ওসি থেকে সি পি সকলেরই বক্তব্যে ধর্ষণ সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মনোভাবের স্পষ্ট বহিঃপ্রকাশ ঘটছে।ধর্ষণ এবং অপরাধীদের আড়াল করার চেষ্টা চলছে তৃণমূল শাসনের গোড়া থেকে। নির্যাতিতাকেই দায়ী করা হচ্ছে এই অপরাধের জন্য। গত মঙ্গলবার রাতে উত্তর চব্বিশ পরগনার বাগদার হরিপুর গ্রামে শিশুপুত্রের গলায় ধারালো অস্ত্র ধরে খুনের হুমকি দিয়ে মাকে ধর্ষণ করে দুষ্কৃতীরা। নির্যাতিতা পুলিশের কাছে অপরাধীদের চিহ্নিত করে অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু পুলিশ ঘটনাটিকে ধাপাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। গত মঙ্গলবার রাতে উত্তর চব্বিশ পরগনার বাগদার হরিপুর গ্রামে শিশুপুত্রের গলায় ধারালো অস্ত্র ধরে খুনের হুমকি দিয়ে মাকে ধর্ষণ করে দুষ্কৃতীরা। স্থানীয় থানার পুলিশ অফিসার মন্তব্য করেছেন, ‘ঘরের দরজা খুলে রাখলে যে কেউ ঢুকবেই। তারপর যা হবার হবে।’ একজন পুলিশ আধিকারিক কতটা নির্লজ্জ, দায়িত্বজ্ঞানহীন হলে এই ধরনের মন্তব্য করতে পারেন? ‘ঘরের দরজা খুলে রাখলে যে কেউ ঢুকবেই। তারপর যা হবার হবে।’ শুধু মন্তব্য করাই নয়, স্থানীয় পুলিশ ধর্ষিতাকে আড়াল করে রেখেছে। কোনোভাবেই যেন প্রকৃত ঘটনা ও অপরাধীদের পরিচয় ধর্ষিতা প্রকাশ না করতে পারেন সেজন্যই এই ব্যবস্থা।উত্তর চব্বিশ পরগনার বাগদার হরিপুর গ্রামে অপরাধীরা যেহেতু সক্রিয় তৃণমূলী বলেই পরিচিত সে কারণেই ধাপাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চলছে। ঘটনার এক সপ্তাহ পেরিয়েছে। কিন্তু ধর্ষিতার মেডিক্যাল টেস্ট হয়নি।উত্তর চব্বিশ পরগনার বাগদার হরিপুর গ্রামে অপরাধীরা যেহেতু সক্রিয় তৃণমূলী অপরাধীর বিরুদ্ধে তথ্য প্রমাণ দুর্বল করার জন্যই অত্যন্ত পেশাদারি পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে পুলিশ প্রশাসন।

No comments: