RESIST FASCIST TERROR IN WB BY TMC-MAOIST-POLICE-MEDIA NEXUS

(CLICK ON CAPTION/LINK/POSTING BELOW TO ENLARGE & READ)

Thursday, June 18, 2015

MANJULA CHELLUR ON INDUSTRY - আপ্যায়নকেই চেল্লুর ‘পরিবেশ’ বোঝাতে চেয়েছেন কিনা, তা তিনি স্পষ্ট করেননি। কারণ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে মমতা ব্যানার্জিও শিল্পপতিদের যথেষ্ট খাতির যত্ন করেন। তাঁদের নিয়ে একাধিকবার বিদেশভ্রমণ করেছেন। সরকারি খরচায় বিলাসবহুল জলযানে সুন্দরবন ঘুরিয়েছেন। একাধিক আড়ম্বরপূর্ণ শিল্প সম্মেলনও করেছেন। কিন্তু তারপরও বিনিয়োগ আসেনি। আসছে না। প্রধান বিচারপতি এদিন মন্তব্য করেছেন, ‘‘ওডিশা, ঝাড়খণ্ড, বিহার থেকেই কেউ বিনিয়োগ করতে আসতে পারে।’’ এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে এদিনই রাজ্যের শিল্পদপ্তরের এক অফিসার বলেছেন, ‘‘পূর্বাঞ্চলের এই রাজ্যগুলি থেকে কেউ পশ্চিমবঙ্গে বিনিয়োগ করতে আসবে কিনা, তা বলতে পারছি না। তবে ঝাড়খণ্ডে বিনিয়োগের পরিমাণ কর্ণাটক, কেরালার থেকে অনেক বেশিই হয়। বিনিয়োগের অঙ্কে ওডিশা দেশের সামনের সারির রাজ্য।’’ এদিন এম পি এস-র আইনজীবী কিশোর দত্ত মঞ্জুলা চেল্লুর-জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চে জানান, তাঁর মক্কেল দু’বছরে ছয় দফায় আমানতকারীদের টাকা ফেরত দিতে চান। এম পি এস-র কাছে আমানতকারীদের পাওনার পরিমাণ প্রায় ১হাজার ৫২০ কোটি টাকা। আর এম পি এস গ্রিনারির সম্পত্তির পরিমাণই ২৯৭৮কোটি ৭৮লক্ষ টাকা। ফলে এই সম্পত্তি বিক্রি করেই আমানতকারীদের প্রাপ্য ফিরিয়ে দেওয়া যায়। পরে প্রধান বিচারপতি নির্দেশ দেন, আমানতকারীদের টাকা দু’বছরের মধ্য নয়, যত শীঘ্র সম্ভব ফেরত দিতে হবে। কারও মেয়ের বিয়ে রয়েছে। কারও চিকিৎসার প্রয়োজন। টাকা দ্রুত ফেরতের ব্যবস্থা করাই আদালতের কাজ।

No comments: