RESIST FASCIST TERROR IN WB BY TMC-MAOIST-POLICE-MEDIA NEXUS

(CLICK ON CAPTION/LINK/POSTING BELOW TO ENLARGE & READ)

Friday, June 19, 2015

KUNAL GHOSH-AMIT MITRA: ফাঁস হয়ে গলায় চেপে বসছে বলেই অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রকে একই বিল দুবছরের মধ্যে তিনবার বিধানসভায় আনতে হলো, এবং তারপরেও শেষপর্যন্ত সাংবাদিক বৈঠকে স্বীকার করে নিতে হলো, এই আইনে সারদাসহ ইতোমধ্যেই ঘটে যাওয়া চিট ফান্ডগুলির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থাই নেওয়া যাবে না। বেআইনি আর্থিক প্রতিষ্ঠানবিরোধী আইনের ২২নম্বর ধারাতে রেট্রোস্পেকটিভ এফেক্ট দিয়ে সারদাসহ ঘটে যাওয়া আর্থিক প্রতারণা মামলাগুলির বিচারের সুযোগ রাখা আছে বলে সরকার দাবি করেছিলো। ২০১৩ সালের ৩০শে এপ্রিল বিধানসভায় বিল পাশের সময় সূর্য মিশ্র সরকারকে সতর্ক করে বলেছিলেন, ফৌজদারি অপরাধে রেট্রোস্পেকটিভ এফেক্ট হয় না। এটা সংবিধানের ২০/১ ধারা বিরোধী। তাই ২২নম্বর ধারা থাকলে বিলটি সংবিধান বিরোধী হয়ে বাতিল হয়ে যাবে। এই ধারা পালটে এমন ধারা রাখা হোক যাতে ঘটে যাওয়া আর্থিক অপরাধগুলির ক্ষেত্রে ভারতীয় দণ্ডবিধি ও ফৌজদারি দণ্ডবিধি, সেবি অ্যাক্ট, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া অ্যাকটের প্রয়োগ করে বিচার করা যাবে। সেদিন বিরোধীদের কথা শোনেনি তৃণমূল সরকার। পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছার কথা জানিয়ে বলেছিলেন, ‘২২নম্বর ধারার মাধ্যমে আমরা সারদাসহ পুরানো ঘটনার সঙ্গে যাদের যোগাযোগ আছে তাদেরও বিচারের জন্য টেনে আনতে পারবো।’

No comments: