RESIST FASCIST TERROR IN WB BY TMC-MAOIST-POLICE-MEDIA NEXUS

(CLICK ON CAPTION/LINK/POSTING BELOW TO ENLARGE & READ)

Thursday, June 18, 2015

GAJENDRA CHAUHAN - লাগাতার ধর্মঘটের পথেই ফিল্ম ইনস্টিটিউটের ছাত্ররা। ********************পুনে, ১৫ই জুন- পুনের ফিল্ম ইনস্টিটিউটের গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হিসেবে গজেন্দ্র চৌহানের নিয়োগের বিরুদ্ধে ছাত্রদের ধর্মঘট চতুর্থ দিনে পড়েছে। এই ধর্মঘট অনির্দিষ্টকাল চলবে বলে ছাত্রদের সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ধর্মঘটী ছাত্রদের তরফে সরকারিভাবেই চিঠি দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী অরুণ জেটলিকে। বি জে পি-ঘনিষ্ঠ এবং চলচ্চিত্র নির্মাণের বিষয়ে অনভিজ্ঞ চৌহানকে ‘মোদীর পুতুল’ বলে বর্ণনা করে বিক্ষোভ তীব্রতর করেছে ছাত্ররা। ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (এফ টি আই আই)-র গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারপার্সন পদে গজেন্দ্র চৌহানের নিয়োগের প্রতিবাদে শুক্রবার থেকে ধর্মঘট করছে ঐতিহ্যশালী এই প্রতিষ্ঠানের ছাত্ররা। এফ টি আই আই ছাত্রদের এই আন্দোলনে সংহতি জানিয়েছে এস এফ আই। বি আর চোপরার টেলিভিশন সিরিয়াল মহাভারতে যুধিষ্ঠিরের চরিত্র করে পরিচিত হয়েছিলেন গজেন্দ্র চৌহান। প্রায় ২০বছর ধরে তিনি বি জে পি’র সঙ্গে যুক্ত। ২০০৪সাল থেকে বি জে পি’র সদস্য পদও রয়েছে তাঁর। বিভিন্ন নির্বাচনে বি জে পি’র হয়ে প্রচারেও নামেন তিনি। কিন্তু সিনেমা তৈরি, চলচ্চিত্র সম্পর্কিত বিষয়ে তাঁর কোনো গুরুত্বপূর্ণ অবদানই নেই। দেশের বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাথায় সঙ্ঘ পরিবারের ঘনিষ্ঠদের যেভাবে বসানো হচ্ছে, সেই প্রক্রিয়ারই সর্বশেষ সংযোজন চৌহান। এফ টি টি আই ছাত্রদের তরফে খোলা চিঠি বিলি করে অভিযোগ করা হয়েছে, বিভিন্ন সময়ে ঋত্বিক ঘটক, আদুর গোপালকৃষ্ণন, শ্যাম বেনেগাল, গিরিশ কারনাড, ইউ আর অনন্তমূর্তি এবং সৈয়দ মির্জার মতো ব্যক্তিরা ছিলেন। সেই প্রতিষ্ঠানে চৌহানের মতো একজন ব্যক্তিকে নিয়োগ করা চিন্তা ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতাকে আঘাত করার লক্ষ্যেই। ছাত্ররা পোস্টারও দিয়েছে: চৌহান, সরে যান/ এই প্রতিষ্ঠানে ঋত্বিক পড়াতেন। চৌহান আবার বিতর্কিত মন্তব্য করে প্রতিবাদের মাত্রা বাড়িয়েই দিয়েছেন। তিনি অভিযোগ করেছেন, ছাত্ররা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রতিবাদ করছে। তাঁকে না জেনেই তাঁর সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে। চৌহান ছাড়াও আরো দু’জনকে গভর্নিং কাউন্সিলে নিয়োগ করা হয়েছে যাঁদের মনোনয়নও সন্দেহজনক। অনাঘা ঘাইসাস এবং শৈলেশ গুপ্তা নামে এই দুই ব্যক্তি হিন্দুত্ববাদী দক্ষিণপন্থী শক্তির হয়ে প্রচারের জন্য সিনেমা বানিয়েছে।

No comments: